আলোর প্রতিসরণ কাকে বলে? আলোর প্রতিসরণের সূত্ৰ গুলি কি কি?

আলোর প্রতিসরণ কাকে বলে এবং আলোর প্রতিসরণের সূত্ৰ গুলো লেখা হলো:

আলোর প্রতিসরণ কাকে বলে

আলোকরশ্মি এক স্বচ্ছ মাধ্যম থেকে অন্য স্বচ্ছ মাধ্যমে যাওয়ার সময় মাধ্যমদ্বয়ের বিভেদ তলে তির্যকভাবে আপতিত আলোকরশ্মির দিক পরিবর্তন করার ঘটনাকে আলোর প্রতিসরণ বলে।

 

আলোকরশ্মি বিভেদ তলের যে বিন্দুতে আপতি হয়ে দ্বিতীয় মাধ্যমে প্রবেশ আপতন বিন্দু বলে। আপতন বিন্দুতে বিভেদ তলের উপর অঙ্কিত লম্বকে অভিলম্ব বলে। আলোকরশ্মি আলোর সাপেক্ষে হালকা মাধ্যম  (বায়ু) থেকে আলোর সাপেক্ষে ঘন মাধ্যমে (কাচ) প্রবেশ করলে অভিলম্বের দিকে সরে যায়, আবার ঘন মাধ্যম থেকে হালকা মাধ্যমে প্রবেশ করলে অভিলম্ব থেকে দূরে সরে যায়।

আলোর প্রতিসরণ কাকে বলে

ধরা যাক, LOM হচ্ছে বায়ু ও কাচ মাধ্যমের বিভেদ তল। AO রশ্মি বায়ু মাধ্যম থেকে O বিন্দুতে কাচ মাধ্যমে প্রবেশ করে OC পথে চলে যায়। যদি কাচ খন্ড না থাকত তাহলে আলোকরশ্মি এপথে না গিয়ে OB পথে চলে যেত। কাচ খণ্ডের উপস্থিতির জন্য আলোকরশ্মির গতিপথ বেঁকে যাচ্ছে। এখানে AO আপতিত রশ্মি, OC প্রতিসরিত রশ্মি। O আপতন বিন্দু এবং NON’ অভিলম্ব। আপতিত রশ্মি অভিলম্বেরসাথে যে কোণ উৎপন্ন করে তাকে আপতন কোণ  বলে। চিত্রে ∠AON = i, আপতন কোণ। আর প্রতিসরিত রশ্মি অভিলম্বের সাথে যে কোণ উৎপন্ন করে তাকে প্রতিসরণ কোণ বলে। চিত্রে ∠N’ OC = r, প্রতিসরণ কোণ।

আলোর প্রতিসরণের সূত্ৰ:

আলোর প্রতিসরণ দুটি সূত্র মেনে চলে । যথা:

১. আপতিত রশ্মি, আপতন বিন্দুতে বিভেদ তলের উপর অঙ্কিত অভিলম্ব ও প্রতিসরিত রশ্মি একই

সমতলে থাকে।

২. আলো যখন এক স্বচ্ছ মাধ্যম থেকে অন্য স্বচ্ছ মাধ্যমে তির্যকভাবে প্রবেশ করে তখন একজোড়া নির্দিষ্ট মাধ্যম ও নির্দিষ্ট রঙের আলোর জন্য আপতন কোণের সাইন ও প্রতিসরণ কোণের সাইনের অনুপাত সর্বদা ধ্রুব থাকে।

এই ধ্রুব সংখ্যাকে µ বা দ্বারা প্রকাশ করা হয়। এই ধ্রুব সংখ্যাই নির্দিষ্ট রঙের জন্য প্রথম মাধ্যমের সাপেক্ষে দ্বিতীয় মাধ্যমের প্রতিসরাঙ্ক।

অর্থাৎ যদি আপতন কোণকে i এবং প্রতিসরণ কোণকে r ধরা হয় তাহলে,

sinisinr=µ =ধ্রুব সংখ্যা

জার্মানির লিডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক স্নেল (Willebrod Snell, 1591-1626) ১৬২১ সালে দ্বিতীয় সূত্রটি আবিষ্কার করেন রলে তাঁর নামানুসারে এই সূত্রটিকে স্নেল-এর সূত্র বলা হয়। একে সাইন-এর সূত্রও বলে।

আপতন কোণ পরিবর্তন করে i1, i2, i3…..ইত্যাদি করলে প্রতিসরণ কোণ যদি যথাক্রমে r1, r2, r3 ….ইত্যাদি হয়, তাহলে স্নেলের সূত্রানুযায়ী,

sin i1sin r1=sin i2sin r2=sin i3sin r3=...........=µ

 অভিলম্ব আপতন: 

সমীকরণ থেকে দেখা যায়,

sinisinr=µ

বা, sin i = µ sin r

এখন আলোক রশ্মি লম্বভাবে আপতিত হলে i = 0°

 sin 0° = µ sin r

বা, µ sin r = 0

বা, sin r = 0 [μ≠0]

r = 0°

অর্থাৎ আলোক রশ্মি লম্বভাবে দুটি মাধ্যমের বিভেদ তলে আপতিত হলে এর গতিপথের কোন পরিবর্তন হয় না।।

আপেক্ষিক আর্দ্রতা কাকে বলে ? এর রাশিমালা প্রতিপাদন কর?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top