হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে? কত প্রকার সংঙ্গাসহ ব্যাখ্যা কর

আজ আমরা জানব হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে। এরসাথে জানব এটি হাইড্রোজেন কত প্রকার ও কী কী এবং এর প্রত্যেকটির সংঙ্গা দিয়ে উদাহরণ সহ বিস্তারিত আলোচনা করব।

হাইড্রোজেন বন্ধন কি

উচ্চ ইলেকট্রন আসক্তি, তীব্র তড়িৎ ঋনাত্মকতা ও ক্ষুদ্র পারমাণবিক আকারবিশিষ্ট পরমাণুর সাথে সমযোজী বন্ধনে যুক্ত থেকে H-পরমাণু একই অণু বা অপর কোন পোলার অণুর ঋনাত্মক মেরু যুক্ত তীব্র তড়িৎ ঋনাত্মক পরমাণুকে দুর্বল স্থির বৈদ্যুতিক আকর্ষণ বলের মাধ্যমে সংযুক্ত করে যে বিশেষ এক ধরনের বন্ধন গঠন করে তাকে হাইড্রোজেন বন্ধন বলে।

হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে

হাইড্রোজেন পরমানু যখন উচচ তড়িৎ-ঋনাত্বক মৌল যেমন ফ্লোরিন, অক্সিজেন বা নাইট্রোজেনের সাথে মিলিত হয়ে সমযোজী বন্ধন গঠন করে, তখন বন্ধনে অংশগ্রহনকারী ইলেকট্রন যুগল অতিশয় উচচতড়িৎ ঋনাত্বক মৌলের দিকে বেশি করে  আকৃষ্ট হয়। ফলে এদের মধ্যে পোলারিটি বা দ্বিমেরুর সৃষ্টি হয়। এরূপে সৃষ্ট পোলার অণু সমুহ যখন পরস্পরের নিকটে আসে তখন এক অণুর ধনাত্মক H প্রান্ত অন্য অণুর ঋনাত্মক প্রান্তের দিকে বিশেষভাবে আকৃষ্ট হয়ে একটি দুর্বল বন্ধন সৃষ্টি করে। এই দুর্বল আকর্ষনকে হাইড্রোজেন বন্ধন বলে।

H বন্ধনকে ডট ডট (……) চিহ্ন দ্বারা প্রকাশ করা হয়।

উদাহরনঃ হাইড্রোজেন ফ্লোরাইড (  Hδ+—Fδ- ) অণুর মধ্যে H- বন্ধন নিম্নরূপঃ

হাইড্রোজেন বন্ধন কত প্রকার

 

রাসায়নিক বন্ধন কাকে বলে, কত প্রকার ও কী কী ?

হাইড্রোজেন বন্ধন কত প্রকার

হাইড্রোজেন বন্ধন দুই প্রকার। যথা:

  • আন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন
  • অন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন

 

আন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে

যখন হাইড্রোজেন পরমাণু বিশিষ্ট অসংখ্য পোলার অণু হাইড্রোজেন বন্ধনের সমন্বয়ে একে অপরের সাথে যুক্ত থাকে তখন এ ধরনের হাইড্রোজেন বন্ধনকে আন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন বলে।

অসংখ্য পানির অণু আন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধনের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে পানির পলিমার অণু গঠন করে। যেমন-

আন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে

 

অন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে

একই অণুর পাশাপাশি দুটি পরমাণুর মধ্যে যখন হাইড্রোজেন বন্ধন গঠিত হয় তখন তাকে অন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন বলে।

যেমন-

অন্তঃআণবিক হাইড্রোজেন বন্ধন কাকে বলে

 

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top