মৌলের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম

মৌলের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম কাকে বলে

পর্যায় সারণিতে অবস্থিত মৌলগুলোর ধাতব ধর্ম, অধাতব ধর্ম, পরমাণুর আকার, আয়নিকরণ বিভব, তড়িৎ ঋনাত্মকতা, ইলেকট্রন আসক্তি ইত্যাদি ধর্মকে মৌলের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম বলে।

তড়িৎ ঋণাত্মকতা কাকে বলে? তড়িৎ ঋণাত্মকতার মান বের করার নিয়ম

তড়িৎ ঋণাত্মকতার মান বের করার নিয়ম

আজকের পাঠে আমরা শিখব তড়িৎ ঋণাত্মকতার মান বের করার নিয়ম। এজন্য আমাদের অবশ্যই তড়িৎ ঋণাত্মকতা কাকে বলে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানা থাকতে হবে। তড়িৎ ঋণাত্মকতা কাকে বলে সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করে তারপর তড়িৎ ঋণাত্মকতার মান বের করার নিয়ম ব্যাখ্যা করব। তড়িৎ ঋণাত্মকতা কাকে বলে কোনো সমযোজী যৌগের অনুতে উপস্থিত দুটি ভিন্ন মৌলের পরমাণুর মধ্যে শেয়ারকৃত […]

তড়িৎ ঋণাত্মকতা কাকে বলে? তড়িৎ ঋণাত্মকতার মান বের করার নিয়ম Read More »

ইলেকট্রন আসক্তি কাকে বলে? ইলেকট্রন আসক্তির ক্রম ব্যাখ্যা কর

ইলেকট্রন আসক্তি কাকে বলে পর্যায়ের বাম দিক থেকে ডান দিকে গেলে ইলেকট্রন আসক্তি বৃদ্ধি পায়

ইলেকট্রন আসক্তির ক্রম ব্যাখ্যা করার পূর্বে আমরা শিখব ইলেকট্রন আসক্তি কাকে বলে। এরপর আমরা ইলেকট্রন আসক্তির ক্রম গুলো ব্যাখ্যা করব।   ইলেকট্রন আসক্তি কাকে বলে গ্যাসীয় বিচ্ছিন্ন একমোল পরমাণুকে একটি করে ইলেকট্রন গ্রহণ করিয়ে একে গ্যাসীয় বিচ্ছিন্ন একমোল একক ঋনাত্মক আয়নে পরিণত করতে যে পরিমাণ শক্তি নির্গত হয় তাকে ইলেকট্রন আসক্তি বলে।   ইলেকট্রন আসক্তির

ইলেকট্রন আসক্তি কাকে বলে? ইলেকট্রন আসক্তির ক্রম ব্যাখ্যা কর Read More »

আয়নিকরণ শক্তির ব্যতিক্রম গুলো কী কী ব্যাখ্যা কর?

আয়নিকরণ শক্তির ব্যতিক্রম Be ও b এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি

Be ও b এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি কেন যা একটি আয়নিকরণ শক্তির ব্যতিক্রম। এর সাথে আরো যেগুলো আয়নিকরণ শক্তির ব্যতিক্রম রয়েছে সেগুলো এই পাঠে আলোচনা করব। আয়নিকরণ শক্তির ব্যতিক্রম আয়নিকরণ শক্তির অনেক গুলো ব্যতিক্রম রয়েছে। এর মেধ্যে গুরত্বপূর্ণ গুলো নিচে ব্যাখ্যা সহ আলোচনা করা হলো: Be ও b এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি Al ও  Mg এর মধ্যে

আয়নিকরণ শক্তির ব্যতিক্রম গুলো কী কী ব্যাখ্যা কর? Read More »

আয়নিকরণ শক্তি কাকে বলে? n ও o এবং p ও s এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি

p ও s এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি

p ও s এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি বের করার পূর্বে আমাদের অবশ্যই আয়নিকরণ শক্তি কাকে বলে জানা থাকতে হবে। n ও o এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি এবং কেন এ সম্পর্কেও এই পাঠে বিস্তারিত আলোচনা করব। আয়নিকরণ শক্তি কাকে বলে এক মোল বিচ্ছিন্ন গ্যাসীয় পরমাণু থেকে একটি করে ইলেকট্রন সরিয়ে একে গ্যাসীয়

আয়নিকরণ শক্তি কাকে বলে? n ও o এবং p ও s এর মধ্যে কোনটির আয়নিকরণ শক্তি বেশি Read More »

আয়নিকরণ বিভব কি? আয়নিকরণ শক্তি বের করার নিয়ম?

আয়নিকরণ বিভব কি আয়নিকরণ শক্তি বের করার নিয়ম

আয়নিকরণ শক্তি বের করার নিয়ম জানার পূর্বে আমাদের আয়নিকরণ বিভব কি তা অবশ্যই জানা থাকতে হবে। তাই সর্বপ্রধম আমরা আয়নিকরণ বিভব সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করে আয়নিকরণ শক্তি বের করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। আয়নিকরণ বিভব কি এক মোল বিচ্ছিন্ন গ্যাসীয় পরমাণু থেকে একটি করে ইলেকট্রন সরিয়ে একে গ্যাসীয় বিচ্ছিন্ন এক মোল একক ধনাত্মক আয়নে

আয়নিকরণ বিভব কি? আয়নিকরণ শক্তি বের করার নিয়ম? Read More »

মৌলসমূহের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম বলতে কী বোঝো ব্যাখ্যা কর

পর্যায় সারণীর একই পর্যায়ের বাম দিক থেকে ডান দিকে গেলে পরমাণুর আকার ক্রমান্বয়ে হ্রাস পায়

মৌলসমূহের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম বলতে কী বোঝো জানতে চাইলে অবশ্যই আমাদের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম কাকে বলে জানা থাকতে হবে। তাই সর্বপ্রথম পর্যায়বৃত্ত ধর্ম কাকে বলে সম্পর্কে জেনে মৌলসমূহের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম বলতে কী বোঝো আলোচনা করব।   পর্যায়বৃত্ত ধর্ম কাকে বলে পর্যায় সারণিতে অবস্থিত মৌলগুলোর ধাতব ধর্ম, অধাতব ধর্ম, পরমাণুর আকার, আয়নিকরণ বিভব, তড়িৎ ঋনাত্মকতা, ইলেকট্রন আসক্তি ইত্যাদি ধর্মকে

মৌলসমূহের পর্যায়বৃত্ত ধর্ম বলতে কী বোঝো ব্যাখ্যা কর Read More »

সকল d ব্লক মৌল অবস্থান্তর মৌল নয় কেন zn ও Sc অবস্থান্তর মৌল নয় কেন

zn ও Sc অবস্থান্তর মৌল নয় কেন

আজ আমরা জানব সকল d ব্লক মৌল অবস্থান্তর মৌল নয় কেন এবং zn ও Sc অবস্থান্তর মৌল নয় কেন। এজন্য সর্বপ্রথম আমাদের d ব্লক মৌল এবং অবস্থান্তর মৌল সম্পর্কে বিস্তারিত জানা থাকতে হবে। তাই d ব্লক মৌল এবং অবস্থান্তর মৌল সম্পর্কে আলোচনার সাথে সাথে সকল d ব্লক মৌল অবস্থান্তর মৌল নয় কেন আলোচনা করব। সকল

সকল d ব্লক মৌল অবস্থান্তর মৌল নয় কেন zn ও Sc অবস্থান্তর মৌল নয় কেন Read More »

s ব্লক মৌল, p ব্লক মৌল, d ব্লক মৌল , f ব্লক মৌল কাকে বলে?

s ব্লক মৌল কাকে বলে, p ব্লক মৌল কাকে বলে, d ব্লক মৌল কাকে বলে ও f ব্লক মৌল কাকে বলে

আজ আমরা শিখব s ব্লক মৌল কাকে বলে, p ব্লক মৌল কাকে বলে, d ব্লক মৌল কাকে বলে ও f ব্লক মৌল কাকে বলে। এরসাথে প্রতিটি ব্লকের মোট কায়টি করে মৌল আছে সেটাও জানব। ইলেকট্রন বিন্যাসের ভিত্তিতে মৌলের শ্রেণি বিভাগ : ইলেকট্রন বিন্যাসের ভিত্তিতে মৌলগুলোকে প্রধানত 4 শ্রেণিতে ভাগ করা যায়। যথা : s –

s ব্লক মৌল, p ব্লক মৌল, d ব্লক মৌল , f ব্লক মৌল কাকে বলে? Read More »

পর্যায় সারণি কাকে বলে ? পর্যায় সারণি ছবি pdf

পর্যায় সারণি কাকে বলে পর্যায় সারণি ছবি pdf

পর্যায় সারণি ছবি pdf দেওয়ার পূর্বে আমরা জানব পর্যায় সারণি কাকে বলে। পর্যায় সারণি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার পর আমরা মূল পাঠে যাব। পর্যায় সারণি কাকে বলে যে সারণীতে মৌলসমূহের ভৌত ও রাসায়নিক ধর্মাবলি পর্যায়ক্রমে আবর্তীত হয় তাকে পর্যায় সারণি বলা হয়। নিচে পর্যায় সারণির ছবি দেওয়া হলো: আধুনিক পর্যায় সারণি ছবি pdf: নিচে আধুনিক পর্যায়

পর্যায় সারণি কাকে বলে ? পর্যায় সারণি ছবি pdf Read More »

পর্যায় সারণিতে মৌলের অবস্থান নির্ণয় ইলেক্ট্রন বিন্যাসের সাহায্যে

ইলেক্ট্রন বিন্যাস হতে পর্যায় সারণিতে মৌলের অবস্থান নির্ণয়

ইলেক্ট্রন বিন্যাস হতে পর্যায় সারণিতে মৌলের অবস্থান নির্ণয় করতে চাইলে অবশ্যই আমাদের পর্যায় সারণি সম্পর্কে বিস্তারিত জানা থাকেতে হবে। তাই আমরা সর্বপ্রথম পর্যায় সারণি কাকে বলে জানব তার পর পর্যায় সারণিতে মৌলের অবস্থান নির্ণয় করব। পর্যায় সারণি কাকে বলে যে সারণীতে মৌলসমূহের ভৌত ও রাসায়নিক ধর্মাবলি পর্যায়ক্রমে আবর্তীত হয় তাকে পর্যায় সারণি বলা হয়। পর্যায়

পর্যায় সারণিতে মৌলের অবস্থান নির্ণয় ইলেক্ট্রন বিন্যাসের সাহায্যে Read More »

Scroll to Top